নিজে সাবধান থাকুন এবং শেয়ার করে অন্যদেরকেও সতর্ক করুন…

মানিকগঞ্জ জেলার প্রত্যন্ত এক গ্রামের ২ বছরের দুরন্ত শিশু সজীব….আজ সকালে খেলার ছলে ১ টাকার একটি কয়েন মুখের ভিতর নিয়ে নড়াচড়া করছিল হঠাৎ করেই সেটি গলার ভিতরে নেমে যায়…. হু হু চিৎকার করে ফুপিয়ে ফুপিয়ে কাঁদতে থাকে সজীব…উপায়ন্ত না পেয়ে পরিবারের কেউ মাথায় পানি ঢালা,কেউ গলায় তেল মালিশ করতে থাকে… কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হচ্ছিল না… ক্রমশই অবস্হার অবনতি হচ্ছিল…. তার পর স্হানীয় হাসপাতাল… মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতাল…. তারপর ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা….

গাবতলী আসার পর বিশাল ট্রাফিক জ্যাম…. কখন পৌছাবে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে……অপেক্ষা যেন শেষ হয় না…. সজীবের শ্বাস কষ্ট হচ্ছে…. এতটুকুন বাচ্চা কাঁদার শক্তি যেন হারিয়ে ফেলেছে… ক্রমশই নিস্তেজ হয়ে পড়ছে…. দুকরে দুকরে কাঁদছে সজীবের মা…. মায়ের কোলে নিস্তেজ প্রিয় সন্তান…. সন্ধা ঘনিয়ে আসছে… ইফতার শেষ… রাস্তা কিছুটা ফাঁকা….

এ্যাম্বুলেন্স রকেট গতিতে ছুটছে….. হন্ত দন্ত হয়ে আল্লারে আমার বাজান রে বাঁচান… বাজান রে বাঁচান….হৃদয় ভাঙ্গা আকুতির এক মর্মশ্পর্শী শব্দে নাক কান গলা বিভাগের ইমার্জেন্সী অপারেশন থিয়েটারের সামনে এক জটলা…. দুপুর থেকে আজ আমি ডিউটিতে আছি….ঘড়ির কাটায় রাত ৮ :০০ টা…. বেশ কয়েকটি জরুরী অপারেশন ইতিমধ্যে করেছি… প্রচন্ড গরমে নাভিশ্বাস… এর মধ্যেই হঠাৎ কান্নার আহাজারি… প্রিয় সন্তান কে বাঁচানোর আকুতি..ভীর ঠেলে এগিয়ে গেলাম..

নিজে সাবধান থাকুন এবং শেয়ার করে অন্যদেরকেও সতর্ক করুন

..মায়ের কোলে নিস্তেজ এক শিশু…. একজন একটি এক্সরে এগিয়ে দিল আমার হাতে, ডাক্তার সাব যা করার করেন… বলে কেঁদে দিল… এক্স রে দেখে স্বপন দাদু আর খালেক দাদু কে বললাম, দাদু দ্রুত ফরেনবডি রিমোভ্যাল সেট রেডি করুন… হাতে একদম সময় নেই… বাচ্চাটি জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে… শ্বাস নালীতে ১ টাকার কয়েন….বাচ্চাটি হাইপোক্সিক কন্ডিশনে…দাদু ল্যারিংগোস্কপি সেট এগিয়ে দিলেন…

সৃষ্টিকর্তা যেন আমার হাতটিকে নিজ হাত দিয়ে বাচ্চাটির গলায় প্রবেশ করিয়ে দিল … no miss by one chance কয়েন টি ফোরসেপ এর গ্রিপে চলে আসে…..ততক্ষণে কয়েন টি আমার হাতে…বাচ্চাটি.. শ্বাস নিতে শুরু করলো…. স্বস্তির নিঃশ্বাস… আমার… আমার পুরো টিমের…. হঠাৎ রাজপ্রিয়া মা মণির কথা মনে পড়ে গেল… চোখের কোণে জল… ঘটনাটি আমার রাজপ্রিয়ার ক্ষেত্রেও হতে পারতো…..সজীবের মা বা কে ডেকে জানালাম….অপারেশন সফল… সজীব ভাল আছে… হাউমাউ করে কান্নার রোল… এ যেন হারিয়ে যাওয়া সন্তান কে ফিরে পাওয়ার… আনন্দাশ্রু…

গত ১ বছরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আজকের ঘটনাটি আমার জীবনে স্মরনীয় হয়ে থাকবে।

সতর্কবার্তা
টাকার কয়েন,পুতির মালা,চাবি,সেফটিপিন, যেকোন ধরনের দানা,ঔষধ শিশুদের নাগালের বাইরে রাখুন….
এ ধরনের দুর্ঘটনা প্রতিরোধে সতর্ক থাকুন।

Dr.Bashudeb kumar Saha
MS,ENT(Thesis),DMCH
30.05.18

Hits: 757

Facebook Comments

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!