সার্বিয়ার সাথে হারলেই বাদ ব্রাজিল

নক আউট পর্বে ওঠার মিশনে সার্বিয়ার মুখোমুখি হবে ব্রাজিল। চার পয়েন্ট নিয়ে ই গ্রুপের শীর্ষে থাকলেও, পরের রাউন্ডে যেতে হলে সার্বিয়ার বিপক্ষে জয় অথবা ড্র পেতেই হবে সেলেসাওদের। কোনভাবেই ম্যাচ হারা চলবে না।

তাই সেরাটা দিয়েই এ ম্যাচে লড়তে প্রস্তুত নেইমার, কৌতিনিয়োরা। অন্যদিকে জয় পেলে নক আউট পর্বে ওঠার সুযোগ থাকবে সার্বিয়ারও। তাই ছাড় দিতে নারাজ তারাও। অতকৃত অ্যারেনায় ম্যাচটি শুরু হবে রাত ১২টায়।

বিশ্বকাপ মানেই হলুদ উৎসবে মেতে ওঠা। বিশ্বকাপ এলেই সাম্বার তালে তালে ফুটবল উন্মাদনায় বিভোর থাকেন ফুটবল প্রেমীরা। তবে, রাশিয়ায় এখনও ধ্রুপদী লড়াই দেখার সুযোগ হয়নি সমর্থকদের। এবারের আসরে এখনও স্বরুপেই যে ফিরতেই পারেনি বিশ্বকাপের সবকটি আসরে খেলা একমাত্র দেশ ব্রাজিল।

২০০২ সালের পর বিশ্বকাপের শিরোপা অধরাই আছে সেলেসাওদের। নিজেদের মাটিতে গেল আসরটাতো ছিলো দু:স্বপ্নে ভরা। বেলো হরিজন্তের ভয়াল সে স্মৃতি ভুলে যেতে চান যে কোন ব্রাজিল সমর্থক। রাশিয়ায় এবার ষষ্ঠ শিরোপা জয়ের মিশন নিয়ে এসেছে ব্রাজিল। তবে, এখনও আহামরি কোন নৈপুন্য দেখাতে পারেনি তিতের শীষ্যরা।

প্রথম ম্যাচে সুইজারল্যান্ডের সঙ্গে ড্র। পরের ম্যাচে কোস্টারিকার সঙ্গে নেইমার ও কৌতিনিয়োর শেষ মুহূর্তের গোলে মান বাঁচায় ব্রাজিল। দুই ম্যাচে চার পয়েন্ট নিয়ে গোল ব্যবধানে এগিয়ে থেকে শীর্ষে আছে ৫ বারের চ্যাম্পিয়নরা।

সমান পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে সুইজারল্যান্ড। নক আউট পর্বে যেতে হলে অতকৃত অ্যারেনায় সার্বিয়ার বিপক্ষে জয় না পেলেও, ড্র করতেই হবে। আর পা ফসকে হেরে গেলেই বেজে যেতে পারে বিদায়ঘন্টা।

১৯৬৬ সালের বিশ্বকাপে শেষবার গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিয়েছিলো ব্রাজিল। এরপর আর কখনোই কালো সে অধ্যায় আসেনি সেলেসাওদের। এবারো সার্বিয়ার কাছে হেরে এমন কিছু ঘটুক তা চান না নিন্দুকরাও। কারণ তা হলে যে অর্ধেকে নেমে আসবে বিশ্বকাপের সৌন্দর্য্য। সার্বিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে তিতের ফরমেশন হতে পারে ৪-৩-৩।

ইনজুরির কারণে এ ম্যাচে ব্রাজিলের হয়ে খেলতে পারবেন না দানিলো ও ডগলাস কস্তা। এছাড়া আর কোন ইনজুরির ভুত চেপে বসেনি তিতের কাঁধে।

প্রতিপক্ষ সার্বিয়া প্রথম ম্যাচে কোস্টারিকাকে হারিয়ে দারুন শুরু করেছিলো। তবে, দ্বিতীয় ম্যাচেই সুইজারল্যান্ডের কাছে হেরে যাওয়ায় অনিশ্চয়তায় পড়েছে তাদের নক আউট পর্বে ওঠা। ব্রাজিলকে মরণ কামড় দিতে সৈন্য সামন্ত সব নিয়েই হাজির হচ্ছেন সার্বিয়ান কোচ। এ ম্যাচে তার সম্ভাব্য ফরমেশন ৪-২-৩-১।

বিশ্বকাপে এর আগে চারবার দেখা হয়েছিলো সার্বিয়া ও ব্রাজিলের। এরমধ্যে দুদলই জিতেছে একটি করে ম্যাচে। ড্র হয়েছে তিনটি ম্যাচ।

Hits: 21

Facebook Comments

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!