সজলের গায়ে হলুদে নাচবেন পূর্ণিমা!

23

জনপ্রিয় অভিনেতা আবদুন নূর সজল দীর্ঘদিন দাপিয়ে কাজ করছেন নাটক-টেলিছবিতে। জনপ্রিয়তার তুঙ্গে থাকা এই অভিনেতা আজও বিয়ে করেননি। সে কারণে সজলকে অনেকেই ‘মোস্ট এলিজেবল ব্যাচেলর’ বলে থাকেন।

সুযোগ পেলেই ভক্তরা জানার চেষ্টা করেন- সজল সিঙ্গেল, নাকি রিলেশনশিপে আছেন! বিয়ের জন্য কেমন মেয়ে পছন্দ তার! আর কবেই বা বিয়ে করবেন সজল?

সজলের দীর্ঘদিনের বন্ধু চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা। চলচ্চিত্রে না হলেও একসঙ্গে তারা কাজ করেছেন ছোটপর্দায়। একটা সময় তারা প্রচুর আড্ডা দিতেন। সে কারণে অফস্ক্রিনে তাদের দু’জনের হৃদ্যতা অনেক বেশি।

এই অভিনেতা এবার অতিথি হয়ে এলেন ‘এবং পূর্ণিমা’ নামে একটি সেলেব্রেটি শো-তে। যার সঞ্চালনা করেন নায়িকা পূর্ণিমা নিজেই। ওই অনুষ্ঠানে এসে সজল তার নিজের জীবনের পছন্দ-অপছন্দ, ভালো লাগা, মন্দ-লাগা বিশেষ করে বিয়ে প্রসঙ্গ সহ নানান বিষয় নিয়ে মনখুলে আড্ডা দিয়েছেন পূর্ণিমার সঙ্গে।

সোমবার (২৫ জুন) সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি স্টুডিওতে অনুষ্ঠানটির রেকর্ডিং সম্পন্ন হয়েছে। অনুষ্ঠানটি শুরু হয় পূর্ণিমা অভিনীত ‘মনের মাঝে তুমি’ ছবির একটি গানের অংশ দিয়ে। যে গানের মাধ্যমে সজলকে ওয়েলকাম করেন পূর্ণিমা।

এরপর কথা প্রসঙ্গে সজল প্রেম করেন কিনা জিজ্ঞেস করেন পূর্ণিমা। অকপটে সজলের স্বীকারোক্তি ছিল এমন, ‘হ্যাঁ। আমি প্রেম করি।’ কার সঙ্গে প্রেম করেন সেটা নাম না বললেও সজল জানান, ‘তিনি মিডিয়ার বাইরের মেয়ের সঙ্গে প্রেম করেন।’

পূর্ণিমার প্রশ্ন ছিল বিয়ের জন্য কেমন মেয়ে পছন্দ? সজলের উত্তর, ‘আমি যাকে বিয়ে করবো তাকে অবশ্যই কেয়ারিং হতে হবে। খুব যে সুন্দরী হতে হবে তা নয়। সুন্দরের চেয়ে তার পারসোনালিটি থাকতে হবে।’

উদাহরণ টেনে সজল বলেন, ‘আমার মা অনেক কেয়ারিং। আমার যে বউ হবে তাকে আমার মায়ের মতো কেয়ারিং হতে হবে।’ এরপর পূর্ণিমা জানান, তিনি সজলের বিয়ের আগে গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে নাচবেন। হইচই করে মাতিয়ে তুলবেন। তখন হাসিতে ফেটে পড়েন সজল।

এই অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে এসে মেয়ে ভক্তদের প্রেম নিবেদন নিয়ে মজার তথ্য জানান সজল। বলেন, ‘একটা মেয়ে ইংলিশ মিডিয়ামে পড়তো। সে আমার বাসায় সামনে তিনদিন দাঁড়িয়ে ছিল।

এরপর অসুস্থ হয়ে পড়েছিল। পরে তার সুস্থতার জন্য আমি তার বাসায় গিয়ে বুঝিয়ে আসি।’ সজলের অংশগ্রহণে ‘এবং পূর্ণিমা’র এই পর্বটি শিগগির আরটিভিতে প্রচারিত হবে। এটি প্রযোজনা করেছেন সোহেল রানা বিদ্যুত ও গ্রন্থনা করেছেন অনিন্দ্য মামুন।

Hits: 9

Facebook Comments